NEWSGAZIPUR.COM

Latest Post

 





রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ এবং গভর্নমেন্ট কলেজ অব অ্যাপ্লাইড হিউম্যান সায়েন্স ( সাবেক নাম ছিল গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ) কলেজে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি দেওয়া হয়েছে।


আজ শুক্রবার (১৩ মে) বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এসব নতুন কমিটির অনুমোদনের কথা জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ইডেন মহিলা কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ এবং গভর্নমেন্ট কলেজ অব অ্যাপ্লাইড হিউম্যান সায়েন্স কলেজ শাখার কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় বিলুপ্ত ঘােষণা করা হলাে। একইসঙ্গে সংগঠনকে গতিশীল করার লক্ষ্যে আগামী ১ (এক) বছরের জন্য আংশিক কমিটি অনুমােদন দেওয়া হলো।


ইডেন মহিলা কলেজে সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা, সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানাসহ ৪৮ সদস্যের এ কমিটিতে সহ-সভাপতি হয়েছেন ৩০ জন। তারা হলেন — তানজিনা মনি পরশ, সোনালী আক্তার, শিরিন সুমি, জেবুন্নাহর শিলা, মারজান উর্মি, সাদিয়া জায়ন সাথী, কল্পনা বেগম, উম্মে রুম্মান রুমি, নাহিদা চৌধুরীর রাকা, জিনাত জায়ন লিমা, বিজলি আক্তার, তানজিলা আক্তার, সুমা মল্লিক পপি, উদিতা আক্তার, আফরোজা আক্তার রশ্মি, কেয়া আক্তার লুনা, মীম ইসলাম, মনিকা তনচংগ্যা মিমি, রোকসানা আক্তার, মায়েদা বেগম মায়া, জান্নাতুল ফেরদৌস, সানজিদা পারভীন চৌধুরী, শেখ সানজিদা, মিলি আক্তার, সুমনা মিম, ফেরদৌসি আশরাফ লুবনা, শিরিনা আক্তার, সুস্মিতা বাড়ৈ, রুনা আক্তার সুপ্তি ও পুনম রহমান বৃষ্টি।


যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পাঁচজন হলেন— শায়না রহমান, ঋতু আক্তার, ফাতিমা খানম বিন্তি, রূপা দত্ত ও মালিহা হায়াত।


সাংগঠনিক সম্পাদক সাতজন হলেন— কামরুন্নাহার জ্যোতি, নুরজাহান খানম সামিয়া, আক্তার বৈশাখী, আর্নিকা তাবাছছুম স্বর্ণা, সুস্মিতা পান্ডে, ফারজানা ইয়াছমিন নিলা ও সুরাইয়া ইসলাম সম্পা। এছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য করা হয়েছে চারজনকে। তারা হলেন— ইফরাত জাহান ইতি, পাপিয়া রয়, তাজুন্নাহার সোমা ও সাবিকুন্নাহার তামান্না।


এদিকে বদরুন্নেসা সরকারি কলেজে সেলিনা আকতার শেলীকে সভাপতি ও হাবীবা আকতার সাইমুনকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে । এছাড়া ৪ জনকে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে। তারা হলেন— আখিনুর আক্তার অনু, রিমা আফরিন, মারুফা আক্তার শ্রাবণী, মোছা. খাদিজা ইসলাম।

অপরদিকে, গভর্নমেন্ট কলেজ অব অ্যাপ্লাইড হিউম্যান সায়েন্সে সভাপতি শারমিন সুলতানা সনি, সাধারণ সম্পাদক আকলিমা আক্তার প্রভাতী।সহ-সভাপতি হলেন ডলি মারমা, নুসরাত শারমিন ঐশী, পপি খাতুন, আফরোজা ইয়াসমিন ঝুমা, সায়িমা মাহবুব বৃষ্টি, শায়লা আক্তার সেতু, বীথি দত্ত, মায়িশা ফারজানা রুহি, জাফরীন আক্তার জুঁই, আয়েশা সিদ্দিকা, মৌসুমী, সুমাইয়া কান্তা, জিনাত সুলতানা প্রিয়া।


যুগ্ন সাধারন সম্পাদক হলেন---- মেহেবুবা আফসানা, প্রান্তি দত্ত স্নিগ্ধা, মায়শা ফারজানা মিম, সাবরিনা রহমান চৈতি ও সিলভানা ফাতিমা অন্তি।


সাংগঠনিক সম্পাদক হলেন-----ইসরাত জাহান মিষ্টি,  নোশিন শাইয়ারা পার্মি, নিশাত তাসনিম বুশরা, রাহাতুল জান্নাত, মাহবুবা ফুর্তি ও তৌহিদা স্বাধীন।


এছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য করা হয়েছে দুইজনকে। তারা হলেন------কানিজ ফাতিমা সোনিয়া ও ফারহানা নাসরিন  

 


আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেছেন, শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টারকে হত্যার কারণ ছিল আদর্শিক। খুনিরা ১৯৭১ সালের পরাজিত শক্তি ও তাদের রাজনৈতিক মিত্র। তারা আমাদের এ স্বাধীনতা মেনে নিতে পারেনি। তারা বারবার চেষ্টা করেছিল আমাদের এ স্বাধীনতাকে পরাধীনতার শৃঙ্খলায় আবব্ধ করার জন্য।


শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টারের ১৮তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে শনিবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর হায়দরাবাদে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে হানিফ বলেন, তিনি কথায় কথায় গণতন্ত্রের সবক দেন। আহসানউল্লাহ মাস্টার হত্যাকাণ্ডসহ অজস্র হত্যাকাণ্ডের দায় আপনাদের ঘাড়ে আছে। আপনি যতই মায়া কান্না কাঁদেন না কেন আহসানউল্লাহ মাস্টারসহ আওয়ামী লীগের ২৬ হাজার নেতাকর্মীর রক্তে আপনার নেত্রীর হাত রঞ্জিত, আপনার নেতার হাত রঞ্জিত। এ হত্যাকাণ্ডের বিচার এ বাংলার মাটিতে শুরু হয়েছে এবং শেষও হবে।



শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টারের ছেলে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মেহের আফরোজ চুমকি এমপি, ইকবাল হোসেন সবুজ এমপি, প্রফেসর রুমানা আলী টুসি এমপি, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আতাউল্লাহ মন্ডল, জেলা পরিষদের প্রশাসক মো. আখতারউজ্জামান, সাবেক সচিব ও জাতীয় পার্টির মহানগর কমিটির সভাপতি এমএম নিয়াজ উদ্দিন, যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট ওয়াজ উদ্দিন মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মহি উদ্দিন মহি,গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মোশিউর রহমান সরকার বাবু ও সাধারণ সম্পাদক শেখ মোস্তাক আহমেদ কাজল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জামিল হাসান দুর্জয়সহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

সকাল থেকে শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টারের কবরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও দলীয় নেতা-কর্মীরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং ফাতেহা পাঠ করে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করেন।

মাহবুবুল আলম হানিফ মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আয়নায় নিজের চেহারা দেখুন। আপনার দুই শীর্ষ নেতা সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দুর্নীতি ও এতিমের টাকা আত্মসাতের জন্য কারাগারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদান্যতা ও দয়ায় জেলখানার পরিবর্তে বাসায় আছেন। আরেকজন শীর্ষ নেতা তারেক রহমান দুর্নীতি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে বিদেশে পলাতক। যে দলের দুই শীর্ষ নেতা কারাগারে ও বিদেশে পলাতক তাদের মুখে আইনের কথা, দুর্নীতি ও গণতন্ত্রের কথা মানায় না।

মাহবুবুল আলম হানিফ আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আহসানউল্লাহ মাস্টার একজন দক্ষ সাংগঠনিক ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তিনি খুব দ্রুত সময়ে শ্রমিকদের মাঝে জনপ্রিয় নেতা হয়ে উঠেছিলেন। যার কারণে তিনি জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি শিক্ষক থেকে একজন শ্রমিক নেতা হয়ে মেহনতি মানুষের খুব কাছে যেতে পেরেছিলেন। আহসানউল্লাহ মাস্টারের ১৯তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর আগেই এ হত্যাকাণ্ডের বিচারের চূড়ান্ত রায় ঘোষণা এবং তা কার্যকর করা হবে।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জননেতা আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি মহোদয়ের সাথে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের শুভেচ্ছা বিনিময়


গাজীপুরের মাটি ও মানুষের নেতা, মাননীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জননেতা আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি মহোদয় পবিত্র ওমরাহ হজ্জ পালন শেষে আজ বৃহস্পতিবার বিকালে দেশে ফিরেন । 

এ সময় গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের নব-নির্বাচিত কমিটির সভাপতি মোঃ মোশিউর রহমান সরকার বাবু ও সাধারণ সম্পাদক শেখ মোস্তাক আহমেদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন



গাজীপুর মহানগরে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।
বুধবার (২৭ এপ্রিল) কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নতুন কমিটিতে মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে মোঃ মশিউর রহমান সরকার বাবু ও শেখ মোস্তাক আহমেদ কাজলকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

এছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হয়েছেন, রাজিব হায়দার সাদিম, মঈন মোল্লা, কাজী মোহাম্মদ সাকির, ইমরান সরকার বাবু, সায়মন সরকার, কাজী রাব্বি হাসান শুভ ও ইলিয়াস আহমেদ।

২০১৩ সালে গাজীপুর সিটি করপোরেশন গঠনের পর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৮টি পদের নাম ঘোষণা করে ওই বছরের ১১ অক্টোবর মাসুদ রানা এরশাদকে সভাপতি ও তৌহিদুল ইসলাম দীপকে সাধারণ সম্পাদক করে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করে তৎকালীন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি। এর প্রায় ১ বছর পর ১৫১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। ২০১৬ সালের ৩ নভেম্বর মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুদ রানা এরশাদকে অব্যাহতি দিয়ে ইকবাল হোসেন পাঠানকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্বাহী সংসদ। তার সভাপতিত্বে ২০১৮ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি সম্মেলনের মাধ্যমে পুরনো কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন কমিটি গঠনের জন্য পদ প্রত্যাশীদের জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সম্মেলনের দীর্ঘ চার বছর পর বুধবার (২৭ এপ্রিল) বিকেলে মহানগর ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

 


একজন মুসলিম আর অন্যজন হিন্দু ধর্মের অনুসারী। কিন্তু ছেলেবেলা থেকেই দুজনের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বে কখনোই ধর্ম বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি। সুধীর বাবু আর মীর হোসেন সওদাগর এক অপরের বন্ধু।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে বার্ধক্যজনিত রোগে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান মীর হোসেন। বন্ধুর মৃত্যুর খবরে শোকে কাতর হয়ে পড়েন দীর্ঘদিনের সাথী সুধীর বাবু।

বন্ধুর বিদায়ের বেলায়ও সঙ্গ ছাড়েননি সুধীর বাবু। জানাজার নামাজে অংশ না নিলেও মাঠে এসে উপস্থিত হয়েছেন তিনি। বন্ধু হারানোর বেদনায় সুধীর বাবু নামাজ চলাকালীন পেছনে গাছের গুঁড়িতে বসে চোখের পানি ফেলতে থাকেন। বিষয়টি উপস্থিত সকলের হৃদয় ছুঁয়েছে। হৃদয়-স্পর্শ ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করা হলে মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী বাজারের ব্যবসায়ী মীর হোসেন সওদাগর ও সুধীর বাবু বাল্যকালের বন্ধু। মীর হোসেন সওদাগর মুদি দোকানের ব্যবসা করেছেন দীর্ঘদিন ধরে। সুধীর বাবুও ব্যবসা করতেন একই বাজারে। গত মঙ্গলবার রাতে বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান মীর হোসেন। বন্ধুর মৃত্যুর খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শোকে কাতর হয়ে পড়েন দীর্ঘদিনের সাথী সুধীর বাবু।

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকালে জানাজা চলাকালীন সুধীর বাবু পেছনে গাছের গুঁড়িতে বসে কান্নায় ভেঙে পড়েন। জানাজা শেষে উপস্থিত সকলে তার এ অকৃত্রিম ভালোবাসা দেখে অবাক হয়েছেন। তার ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করা হলে মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বন্ধুত্ব এমনই হওয়া উচিত বলে লিখেছেন ফেসবুকে ব্যবহারকারীরা।

অনেকে আবার লিখেছেন, সত্যিকারের বন্ধুত্ব আসলেই এমন হয়। যে বন্ধুত্ব জাত দেখে না। ধর্ম দেখে না। ধনী-গরিবের ভেদাভেদ চেনে না।


 করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যাদের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল, তাদের জন্য তৃতীয় ডোজের টিকা ব্যবহারের জরুরি অনুমোদন দিয়েছে মার্কিন খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ)।


বৃহস্পতিবার এফডিএ'র ওয়েবসাইটে এ বিষয়ে একটি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, করোনার বিরুদ্ধে যারা 'ইমিউনকমপ্রোমাইজড' (প্রতিরোধ ক্ষমতা কম), তারা মডার্না ও ফাইজারের বুস্টার ডোজ ব্যবহার করতে পারবেন।


'ইমিউনকমপ্রোমাইজড' বা দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা মূলত শারীরিক জটিলতার ভুগছেন এমন রোগীদের ক্ষেত্রে দেখা যায়। যাদের এইচআইভি-এইডসের মতো দীর্ঘস্থায়ী রোগ আছে, যারা ক্যান্সারের চিকিৎসা নিচ্ছেন, যাদের শরীরে কোনো অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়েছে, যাদের অতিরিক্ত ধূমপানের কারণে শারীরিক জটিলতা আছে, তাদের করোনার বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা দুর্বল হতে পারে।


এর আগে, ইসরায়েল ও জার্মানির মতো আরও কয়েকটি দেশ করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ও অন্যান্য সংকট এড়াতে তৃতীয় শট দেওয়ার পরিকল্পনা করে। তবে, বিজ্ঞানীরা এখনো কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজের বিস্তৃত ব্যবহার নিয়ে বিভক্ত। গত সপ্তাহে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে সেপ্টেম্বরের শেষ পর্যন্ত কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের বুস্টার শট স্থগিত রাখার আহ্বান জানানো হয়।

MKRdezign

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget